প্রথম পাতা > ইতিহাস, ইসলাম, ধর্মীয়, বাংলাদেশ, শিল্প > রাজশাহীর বাগধানী শাহি মসজিদ

রাজশাহীর বাগধানী শাহি মসজিদ

bagdhani-shahi-mosque. ম সাজু : বাগধানী শাহি মসজিদের’ অবস্থান রাজশাহীর পবা উপজেলার নওহাটার বাগধানী গ্রামে। তিন গম্বুজবিশিষ্ট ঐতিহ্যবাহী মসজিদটির নির্মাণশৈলী পর্যটকদের বিমোহিত করে। মসজিদটির দৈর্ঘ্য ৮০ ফুট এবং প্রস্থ ৪০ ফুট। আয়তন ৩ হাজার ২০০ বর্গফুট।

বাগধানী শাহি মসজিদের মেহেরাব তিনটি, দরজা তিনটি, দুটি জানালা ও একটি মিনার রয়েছে। চার কোনায় নকশাখচিত গম্বুজ আকৃতির মনোরম পিলার রয়েছে। এছাড়াও মসজিদের চারপাশের দেয়ালের ভেতর ও বাইরে চিনামাটিতে খচিত মনোরম নকশা রয়েছে। মসজিদের সদর দরজার শিলালিপিতে উল্লেখ আছে, মুন্সী মোহাম্মদ এনায়েতুল্লাহ বাংলা ১২শ’ সালে এই মসজিদটি নির্মাণ করেছেন।

যখন নদীপথই ছিল যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম তখন এই মসজিদকে ঘিরেই এখানে বারনই নদীর ঘাট ছিল। নদী তীরের এই ঘাট ঘেঁষে সপ্তাহে দু’দিন হাট বসত। এটিই ছিল পবার সবচেয়ে পুরনো হাট। এখনও শুক্র ও মঙ্গলবার হাট বসে। তবে সেই জমজমাট অবস্থা আর নেই। স্থানীয়রা জানান, মনোবাসনা পূরণের জন্য দূরদূরান্ত থেকে লোকজন পুরনো আমলের এই মসজিদে নামাজ আদায় করতে আসেন। এজন্য জুমার দিন বাড়তি মুসল্লি ভিড় করেন সেখানে। ১৯৯০ সালে ভূমিকম্পে মসজিদটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। মসজিদের পাশে অবস্থিত কাচারি ঘরের ধ্বংসাবশেষ এখনও কালের সাক্ষী। মসজিদের চারপাশে থাকা বিস্তর ফাঁকা জায়গা অনেকে দখল করে রেখেছে।

পবা উপজেলার বর্তমান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম হোসেন জানান, ঐতিহাসিক এই মসজিদটি প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের নজরে এসেছে। এরই মধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, ইউএনওর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মসজিদটি সংরক্ষণের জন্য গত ১২ জুলাই প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের উপসচিব গাজী ওয়ালিউলহক স্বাক্ষরিত একটি চিঠি আসে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে। এরপর নির্দেশনা অনুযায়ী মসজিদটির সার্বিক অবস্থা ও ভূমি তফসিল উল্লেখ করে প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরে চিঠি পাঠিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। তিনি প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের বগুড়ার আঞ্চলিক পরিচালকের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছেন।

যেভাবে যাবেন :রাজশাহী শহর থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার উত্তরে নওহাটা পৌরসভার বাগধানী কাচারিপাড়ায় মসজিদটি অবস্থিত। যার একপাশ দিয়ে তানোররাজশাহী পাকা রাস্তা এবং অন্য পাশ দিয়ে বয়ে চলেছে বারনই নদী। নদীর ওপর নির্মিত হয়েছে সংযোগ ব্রিজ। মসজিদ সংলগ্ন এলাকা সবুজায়নের শ্যামল প্রান্তর। রাজশাহী নগরীর রেলগেট থেকে তানোর রোডে মাত্র ১৫ টাকা ভাড়া দিয়ে যাওয়া যায় বাগধানী এলাকায়। এছাড়াও রাজশাহীনওগাঁ মহাসড়কের নওহাটা ডিগ্রি কলেজ মোড়ে নেমে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা এবং নসিমনকরিমনেও বাগধানী মসজিদে যাওয়া যায়।

Advertisements
  1. কোন মন্তব্য নেই এখনও
  1. No trackbacks yet.

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: